খাগড়াছড়িতে পরাজিত হয়েও ভোটারদের দ্বারে দ্বারে বিএনপির মেয়র প্রার্থী খলিল

307

মো.আকতার হোসেন,খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি : ভোটে হেরেছি, তাই বলে কি হয়েছে। যারা ভোট দিয়েছেন, তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করতে ভুলে যাননি। তাই নির্বাচনের পরের দিন থেকে আবার ভোটারদের ঘরে ঘরে যাচ্ছেন খাগড়াছড়ি পৌরসভা নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী মো: ইব্রাহিম খলিল। তিনি সুখে-দু:খে, বিপদে-আপদে ভোটারদের পাশে থাকার অঙ্গীকার করছেন।

Advertisement

শনিবার (১৬ জানুয়ারি) অনুষ্ঠিত খাগড়াছড়ি পৌরসভা নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী মো: ইব্রাহিম খলিল ৪৩০৮ ভোট পেয়ে পরাজিত হন। কিন্ত ভোটে পরাজিত হলেও মনোবল হারাননি। বরং নির্বাচনের পরের দিন থেকে ফের ভোটারদের ঘরে ঘরে গিয়ে উল্টো ভোটারদের শান্তনা দিচ্ছেন। পরামর্শ দিচ্ছেন মনোবল না হারাতে। প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন পৌরবাসীর ভোট আর নাগরিক অধিকার আদায় না হওয়া পর্যন্ত মাঠে থাকবেন।

ইব্রাহিম খলিল ভোটের পরের দিন (১৭ জানুয়ারি) হাসপাতাল গেইট, মধুপুর, সবুজবাগ, কলেজ গেইট ও মুসলিমপাড়া এলাকায় ভোটারদের ঘরে ঘরে গিয়ে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। একইভাবে আজ সোমবার (১৮ জানুযারি) খাগড়াছড়ি বাজার, আদালত সড়ক, আদালত পাড়া, সেলিম মার্কেট, কুমিল্লা টিলা, শালবাগান, ইসলামপুর এলাকায় ভোটারদের ঘরে ঘরে যাচ্ছেন, জানাচ্ছেন কৃতজ্ঞতা।

ভোটের পরে ইব্রাহিম খলিলের এমন গণসংযোগে সাধারণ মানুষের মাঝে প্রশংসা কুড়িয়েছে। পাশাপাশি কর্মী-সমর্থকদের মনোবল বাড়িয়েছে।

বিএনপি প্রার্থী ইব্রাহিম খলিলের মতে, জনগণের ভোটে তিনি জিতেছেন, কিন্তু ‘ডিজিটাল কারচুপির মাধ্যমে নিজেদের মনোনীত প্রার্থীকে জিতিয়ে দিয়েছে আওয়ামী লীগ। ইভিএমে মেমোরী কার্ড পরিবর্তনের মাধ্যমে পূর্ব পরিকল্পিত প্রার্থীকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়েছে। প্রশাসন বাইরে কঠোর নিরাপত্তা দেখালে ভিতরে কারচুপি করেছে।’ ইভিএমে ডিজিটাল কারচুপি না হলে দ্বিগুন ব্যবধানে ধানের শীষের বিজয় হতো দাবি করে বিএনপির প্রার্থী ইব্রাহিম খলিল বলেন, আমরা শুরু থেকে যেমনটি আশঙ্কা করেছিলাম, ফলাফলও তাই হলো।

Advertisement