গণতন্ত্র পুনঃরুদ্ধার আন্দোলনে ৭৩৫ টি ভোট কেন্দ্রে এজেন্টসহ ভোটারদের পাশে থাকবে যুবদল:দীপ্তি-শাহেদ

507

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী যুবদল কেন্দ্রীয় কমিটির চট্টগ্রাম বিভাগীয় সহ-সভাপতি ও চট্টগ্রাম মহানগর যুবদলের সভাপতি মোশাররফ হোসেন দীপ্তি এবং বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী যুবদল কেন্দ্রীয় কমিটির চট্টগ্রাম বিভাগীয় সহ-সাধারন সম্পাদক ও চট্টগ্রাম মহানগর যুবদলের সাধারন সম্পাদক মুহাম্মদ শাহেদ এক যৌথ বিবৃতিতে বলেন, আগামী কাল চসিক নির্বাচন বীর চট্টলার জন্য অগ্নিপরীক্ষা। ধানের শীষের প্রার্থী ডাঃ শাহাদাত হোসেন কে বিজয়ী করতে যুবদলের নেতা-কর্মীরা নিজ নিজ ভোট কেন্দ্রে এজেন্ট সহ সাধারণ ভোটারদের নিয়ে ভোট কেন্দ্রে যাবে।

Advertisement

হারানো গণতন্ত্র ও মানুষের ভোটের অধিকার ফিরিয়ে আনতে প্রতিটি যুবদল কর্মীরা জীবন বাজি রেখে ভোট কেন্দ্রে সুষ্ঠ ভোটের পরিবেশের জন্য যা যা করনীয় তাই করবে। গণতন্ত্র মানেই অবাধ নিরপেক্ষ নির্বাচন। জনগণের ভোটে ফলাফল নির্ধারিত হবে। ভোটার’রা যাকেই বিজয়ী করবে সেই নির্বাচিত হবে। শাসকদল যদি পূর্বের ন্যায় কারচুপি সহ অপকৌশলে লিপ্ত হয়, জাতায়তাবাদী শক্তি তা শক্ত হাতে মোকাবেলা করার জন্য যুবদলের নেতাকর্মীদের’কে অনুরুধ জানিয়েছেন।

একই সাথে গ্রেফতারকৃত নগর যুবদলের পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক এস.এম বখতিয়ার উদ্দিন, পাঁচলাইশ থানার যুগ্ম আহবায়ক মনির হোসেন ভূট্টো, মাসুদ রানা, মহিন উদ্দিন মহিন, আইয়ুব খান, খোরশেদ, মিজান, ইমাম উদ্দিন, ইসমাইল, মাসুম, সাইদুজ্জামান রনি, আইনুল ইসলাম জুয়েল, শাহ আলম মনির চৌধুরী’র নিঃশর্ত মুক্তির দাবী জানান নগর যুবদল নেতৃদ্বয়। নতুন করে ডবলমুরিং ও চকবাজার, পতেঙ্গা সহ অন্যান্য থানায় মিথ্যা বানোয়াট মামলা দায়েরের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান। নগর যুবদলের সহ-সভাপতি ফজলুল হক সুমন, সহ-সাধারণ সম্পাদক ওসমান গণি, সহ-সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম মানিক, নুরুল ইসলাম আজাদ, সদস্য লতিফুল বারী সুমন, বজল আহমেদ, আকতার হোসেন, মাহবুব আলম যুবরাজ, ইসমাইল সরকার সহ বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতা-কর্মীদের মিথ্যা মামলা অবিলম্বে প্রত্যাহারের আহবান জানান।

তারা বলেন, দেশ ও জাতির বৃহত্তর স্বার্থে পুলিশ ও নির্বাচন কমিশনসহ প্রশাসনের সর্বস্তরের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের আরো দায়িত্বশীল ও নিরপেক্ষ ভাবে কাজ করতে হবে। প্রজাতন্ত্রের কর্মচারী কোন দলের অনুগত হতে পারে না এটাই গনন্ত্রের শক্তি।

আগামীকাল চসিক নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠভাবে সম্পন্ন হবে। কোনরূপ কারচুপির চেষ্টা করলে বীর চট্টলা থেকেই হারানো গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে আন্দোলন শুরু হবে।জনগনই সকল ক্ষমতার উৎস। জনগনই এদেশের মালিক এটা ভূলে গেলে চলবে না। চসিক নির্বাচনে চট্টগ্রাম মহানগর যুবদলের আওতাধীন থানা ও ওয়ার্ড সহ সংশ্লিষ্ট ইউনিট নেতৃবৃন্দ এক একজন ডাঃ শাহাদাত হয়ে ধানের শীষের জন্য জীবন-মরণ এক করে সাধারণ ভোটারদের পাশে থাকবে। প্রশাসনকে কোন দলের হয়ে কাজ না করে দেশের জন্য, গণতন্ত্রের জন্য কাজ করার অনুরোধ জানান।

Advertisement