রোহিঙ্গা কর্মচারীর হাতেই খুন হলেন জাপা নেতা আনোয়ার : অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার

230

লোহাগাড়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি : চট্টগ্রামের লোহাগাড়ায় এক মাস পূর্বে নিখোঁজ হওয়া জাতীয় পার্টির নেতা আনোয়ার হোসেনের (৪২) অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

Advertisement

শুক্রবার (২৯ জানুয়ারী) দিবাগত রাত দেড়টার দিকে উপজেলা সদর ইউনিয়নের দরবেশ হাট সওদাগর পাড়াস্থ নিজের ব্যবসা প্রতিষ্টান গরুর খামারের পেছন থেকে মাটি কুঁড়ে তাঁর গলিত লাশটি উদ্ধার করা হয়।

আনোয়ার হোসেন ওই এলাকার মৃত আহমদ হোসেনের বড় ছেলে। তিনি পেশায় একজন গরু ব্যবসায়ী। এছাড়াও তিনি উপজেলা জাতীয় পাটির কার্যনির্বাহী সদস্য ও জাতীয় যুব সংহতি লোহাগাড়া উপজেলা শাখার সিনিয়র সহ-সভাপতি ছিলেন।

লোহাগাড়া থানা পুলিশ জানান, গত ৩০ ডিসেম্বর লোহাগাড়া উপজেলা সদরের দরবেশ হাট সওদাগর পাড়ার নিজের গরুর খামার থেকে বটতলীর ভাড়া বাসায় ফেরার পথে নিখোঁজ হন আনোয়ার হোসেন। পরের দিন সকালে তাঁর ছোট ভাই সেলিম উদ্দিন লোহাগাড়া থানায় একটি নিখোঁজ সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। পরে ২১ জানুয়ারি আনোয়ারের স্ত্রী নার্গিস আক্তার বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের আসামি করে থানায় একটি অপহরণ মামলা করেন। নিখোঁজের পর থেকে বিভিন্ন সোর্স ও প্রযুক্তির মাধ্যমে জাতীয় পার্টির নেতা আনোয়ারকে উদ্ধারের চেষ্টা চালায় পুলিশ। সর্বশেষ ২৮ জানুয়ারী এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে কক্সবাজারের উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা আশ্রয় শিবির থেকে আনসার উল্লাহ (২১) নামের তাঁর গরুর খামারের এক কর্মচারী এবং স্থানীয় আসিফ(১৭) নামের এক কিশোরকে আটক করে পুলিশ। তাদের দেওয়া স্বীকারোক্তি অনুযায়ী শুক্রবার দিবাগত রাত দেড়টার দিকে নিজের গরুর খামারের পেছন থেকে মাটিচাপা দেওয়া অবস্থায় আনোয়ারের গলিত লাশটি উদ্ধার করা হয়।

লোহাগাড়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. রাশেদুল ইসলাম বলেন, আনোয়ার হোসেন নিখোঁজ হওয়ার পর থেকে তাঁকে উদ্ধারের চেষ্টায় ছিল পুলিশ। বিভিন্ন সোর্স ও প্রযুক্তি ব্যবহার করে আনোয়ারের গরুর খামারের পলাতক এক কর্মচারী ও এক কিশোরকে আটক করা হয়। পরে তাদের দেওয়া তথ্যমতে, আনোয়ারের মাটি চাপা দেওয়া গলিত লাশটি উদ্ধার করা হয়।

তিনি আরো বলেন, খামারের কর্মচারীদের বেতন দেওয়া ও গালি-গালাজ করার কারণে আনোয়ারের সাথে কর্মচারীদের মনোমালিন্য ছিল। এর রেশ ধরে খামারের কর্মচারীরা ৩০ ডিসেম্বর রাতে তাঁকে প্রথমে কোদাল দিয়ে মাথায় আঘাত করেন। ওই সময় তিনি অজ্ঞান হয়ে পড়ে যান। পরে তাঁকে ছুরিকাঘাত করে মৃত্যু নিশ্চিত করেন ঘাতকেরা।
এদিকে, শনিবার সকালে তাঁর লাশ ময়নাতদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

নিহত জাপা নেতা আনোয়ার হোসেনের লাশ উদ্ধার তৎপরতা কর্মকান্ডে উপস্থিত ছিলেন সাতকানিয়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জাকারিয়া রহমান জিকু, লোহাগাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আহসান হাবিব জিতু, লোহাগাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাকের হোসাইন মাহমুদ ও পরিদর্শক (তদন্ত) মো. রাশেদুল ইসলামসহ স্থানীয় সাংবাদিকগণ।

২৪ ঘণ্টা/এ. কে. আজাদ

Advertisement