আগামীকাল সহকারী স্টেশনমাস্টার পদের বাছাই পরীক্ষা

55

বাংলাদেশ রেলওয়ের সহকারী স্টেশনমাস্টার পদের বাছাই পরীক্ষা (এমসিকিউ) আগামীকাল অনুষ্ঠিত হবে। এ পদে মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ৩ লাখ ৪০ হাজার ৫৩১। এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে দেশের আটটি বিভাগ এবং বগুড়ায়। আগামীকাল বিকেল তিনটায় পরীক্ষা শুরু হবে।

Advertisement

বাংলাদেশ রেলওয়ের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (অপারেশন) সরদার সাহাদাত আলী স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে সহকারী স্টেশনমাস্টার পদের বাছাই পরীক্ষা সংক্রান্ত জরুরি নির্দেশনা দিয়েছে। এ পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী সব পরীক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে নির্দেশনাগুলো তুলে ধরা হলো–

জরুরি নির্দেশনা

প্রবেশপত্র ছাড়া কোনো পরীক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবে না। হাজিরা তালিকায় প্রত্যেক প্রার্থীর রেজিস্ট্রেশন নম্বর, নামের পাশে তার ছবি এবং প্রবেশপত্রের অনুরূপ স্বাক্ষর মুদ্রিত থাকবে। প্রবেশপত্রের ছবি ও স্বাক্ষরের সঙ্গে হাজিরা তালিকার ছবি ও স্বাক্ষর মিলিয়ে দেখা হবে। মিল না থাকলে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

পরীক্ষাকেন্দ্রে বই-পুস্তক, ব্যাগ, হাতঘড়ি, পকেটঘড়ি, ইলেকট্রনিক ঘড়ি, মোবাইল ফোন, ঘড়িসদৃশ মোবাইল ফোন, ক্যালকুলেটর বা কোনোরূপ ইলেকট্রনিক যোগাযোগ ডিভাইস আনা সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। পরীক্ষার সময় পরীক্ষার্থীরা কানের ওপর কোনো আবরণ রাখতে পারবে না। পরীক্ষার হলে পরীক্ষার্থীরা অলংকারজাতীয় কিছু ব্যবহার করবে না।

পরীক্ষার হলে ক্রেডিট কার্ড, ব্যাংক কার্ডসদৃশ কোনো কিছু বহন করা যাবে না। পরীক্ষা চলাকালে পরীক্ষাকক্ষে কোনো পরীক্ষার্থীর কাছে নিষিদ্ধঘোষিত সামগ্রী পাওয়া গেলে তা বাজেয়াপ্ত করে তার প্রার্থিতা বাতিল করা হবে। ওই প্রার্থীকে বহিষ্কার করে তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এই পরীক্ষায় মোট ৭০ (সত্তর)টি প্রশ্ন থাকবে। পূর্ণমান হবে ৭০ (সত্তর)। পরীক্ষার্থী প্রতিটি শুদ্ধ উত্তরের জন্য (এক) নম্বর পাবে। প্রতিটি ভুল উত্তরের জন্য ০.৫ নম্বর কাটা যাবে। পরীক্ষার জন্য পূর্ণ সময় ১ (এক) ঘণ্টা ৩০ (ত্রিশ) মিনিট।
উত্তরপত্রে রেজিস্ট্রেশন নম্বর সঠিকভাবে না লিখলে এবং সঠিকভাবে পূরণ না করলে, কোনোরূপ কাটাকাটি করলে, উত্তরপত্রে ফ্লুইড লাগালে তার প্রার্থিতা বাতিল হবে।

প্রার্থীদের সরকার নির্দেশিত স্বাস্থ্যবিধি আবশ্যিকভাবে অনুসরণপূর্বক সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। এবং অবশ্যই মাস্ক পরিহিত অবস্থায় পরীক্ষায় অংশ নিতে হবে।

কোনো পরীক্ষার্থীর ক্ষেত্রে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিতে বর্ণিত শর্তের উল্লেখযোগ্য (substantive) ঘাটতি পাওয়া গেলে মৌখিক পরীক্ষার আগে বা পরে যেকোনো পর্যায়ে ওই পরীক্ষার্থীর প্রার্থিতা বাতিল করা হবে।

পরীক্ষার্থীদের করণীয়

পরীক্ষার্থীরা পরীক্ষা শুরুর ন্যূনতম ৩০ মিনিট আগে নির্ধারিত পরীক্ষার হলে প্রবেশ করে নিজ আসন গ্রহণ করতে হবে। বেলা ৩টার পর কোনো পরীক্ষার্থী পরীক্ষাকেন্দ্রে প্রবেশ করতে পারবে না। পরীক্ষা শেষ না হওয়া পর্যন্ত পরীক্ষার্থীরা হল ত্যাগ করতে পারবে না।

প্রার্থীদের উত্তরপত্র দেওয়া হবে। পরীক্ষার্থীরা উত্তর পড়ে নিজ নাম, পিতার নাম, নিজ জেলা, রেজিস্ট্রেশন নম্বর এবং পদের নাম কালো কালির বলপয়েন্ট কলম দিয়ে লিখবে এবং রেজিস্ট্রেশন নম্বরের সংশ্লিষ্ট ঘরে নির্ধারিত স্থানে স্বাক্ষর করে পরিদর্শকদের নির্দেশনামতে হাজিরা তালিকায় স্বাক্ষর করবে।

পরীক্ষার্থীদের প্রশ্নপত্র দেওয়া হবে। প্রশ্নপত্রে যে সেট উল্লেখ থাকবে সেই সেট অনুসারে উত্তরপত্রের নির্দিষ্ট ঘরে সেট নম্বর লিখবে এবং সংশ্লিষ্ট বৃত্ত ভরাট করবে। বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে পরীক্ষার্থী উত্তর দান শুরু করবে।

পরীক্ষা শেষ হলে পরীক্ষার্থীরা নিজ নিজ আসনে অবস্থান করবে। পরিদর্শকেরা উত্তরপত্র সংগ্রহ করে বুঝে নেওয়ার পর পরীক্ষার্থীরা পরীক্ষাকক্ষ ত্যাগ করবে। পরীক্ষার্থীরা প্রশ্নপত্র নিয়ে যেতে পারবে না।

Advertisement