রমজানকে কেন্দ্র করে ভোগ্যপণ্য সিন্ডিকেটের অপতৎপরতা রুখতে সরকারের প্রতি সুজনের আবেদন

210

আসন্ন পবিত্র রমজান মাসকে কেন্দ্র করে ভোগ্যপণ্য সিন্ডিকেটের অপতৎপরতা রুখে দেওয়ার জন্য সরকারের প্রতি বিনীত আবেদন জানিয়েছেন নাগরিক উদ্যোগের প্রধান উপদেষ্টা এবং চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের সদ্য বিদায়ী প্রশাসক আলহাজ্ব মোহাম্মদ খোরশেদ আলম সুজন।

Advertisement

বুধবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) বিকেল ৪টায় সদ্য বিদায়ী চসিক প্রশাসকের উত্তর কাট্টলীস্থ বাসভবনে নাগরিক উদ্যোগের নীতি নির্ধারণী সভায় তিনি উপরোক্ত বক্তব্য রাখেন।

নাগরিক উদ্যোগের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান হাজী মো: ইলিয়াছ’র সভাপতিত্বে এবং সদস্য সচিব হাজী মো: হোসেন’র সঞ্চালনায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন রাজনীতিবিদ ইন্দু নন্দন দত্ত, চট্টগ্রাম চেম্বারের পরিচালক সৈয়দ ছগির আহমদ, দীপঙ্কর চৌধুরী কাজল, আলাউদ্দিন আহমেদ চৌধুরী, আবদুচ ছালাম, এস এম আবু তাহের, আবদুর রহমান মিয়া, মো: হারুন, মহিউদ্দিন আহমেদ, সাইদুর রহমান, এজহারুল হক, ছালেহ আহমদ জঙ্গী, নুরুল কবির, মোরশেদ আলম, কামরুল হোসেন, মো: শাহজাহান, মো: সেলিম, শিশির কান্তি বল, ডা: অঞ্জন কুমার দাশ, মো; জানে আলম, অর্নিবাণ দাশ বাবু, শেখ মামুনুর রশিদ, সমীর মহাজন লিটন, জাহাঙ্গীর আলম, সাইফুল্লাহ আনছারী, সোলেমান সুমন, শহিদ উল্লাহ লিটন, নাছির উদ্দিন, মো: ওয়াসিম, জমির উদ্দিন মাসুদ, মো: সেলিম, মো: বেলাল, মনিরুল হক মুন্না, তানভীর হাসান, উৎপল দত্ত, মো: জাবেদ, মো: এমরান, সালাউদ্দিন জিকু, হাসান মুরাদ।

এ সময় সুজন আরো বলেন, প্রতি বছরই রমজানকে কেন্দ্র করে কতিপয় অসাধু সিন্ডিকেট অহেতুক দ্রব্যমূল্যের দাম বৃদ্ধি করে জনগণকে ভোগান্তিতে ফেলে। আসন্ন রমজানকে কেন্দ্র করে তাদের সে অপতৎপরতা এখন থেকেই শুরু হয়ে গিয়েছে। আমরা দেখতে পাচ্ছি যে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য সামগ্রীর দাম আস্তে আস্তে বৃদ্ধি পেতে শুরু করেছে। প্রতি বছর রমজানকে কেন্দ্র করে সরকার দ্রব্যমূল্যের দাম জনগণের ক্রয়ক্ষমতার মধ্যে রাখার জন্য নানামুখী পদক্ষেপ গ্রহণ করে। সে সময় আইন শৃঙ্খলা বাহিনীসহ সরকারের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ গোয়েন্দাসংস্থা দ্রব্যমূল্যের দাম সহনীয় পর্যায়ে রাখতে বিভিন্ন কর্মতৎপরতা অব্যাহত রাখে। তাই সেই সময় দ্রব্যমূল্যের দাম বৃদ্ধির ঝুঁকি না নিয়ে এখন থেকেই দ্রব্যমূল্যের দাম বৃদ্ধির অসাধু তৎপরতায় লিপ্ত রয়েছে ঐ সিন্ডিকেটটি। যাতে রমজানকে কেন্দ্র করে তাদের অসাধু তৎপরতাগুলো লোকচক্ষুর অন্তরালে থেকে যায়। আমরা নাগরিক উদ্যোগের পক্ষ থেকে এ ধরনের সমস্ত অসাধু তৎপরতার তীব্র নিন্দা জানাই। আমরা গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা এবং বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়ের নিকট ঐ সব সিন্ডিকেটের অপতৎপরতা রোধ করার জন্য এখন থেকেই কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ করার সবিনয় অনুরোধ জানাচ্ছি। সেই সাথে রমজানের প্রয়োজনীয় দ্রব্য সামগ্রী এখন থেকে সরকারের পর্যাপ্ত মজুদ রাখার জন্য বিনীত আবেদন জানাই।

তিনি আরো বলেন, চট্টগ্রামের আদি বাসিন্দাদের জায়গাজমি সরকারের বিভিন্ন সংস্থা কলকারখানা সহ নানাবিধ উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য হুকুম দখল করে নিয়েছে। কিন্তু দেখা যাচ্ছে যে, হুকুম দখলকৃত জায়গা যে সকল প্রকল্প বাস্তবায়নের কথা বলে হুকুম দখল করা হয়েছিল সে সকল প্রকল্প অদ্যবদি বাস্তবায়ন করা হয় নাই। বছরের পর বছর হুকুম দখলকৃত জায়গা অব্যবহৃত হয়ে পড়ে আছে। ফলত এ সব গুরুত্বপূর্ণ জায়গাগুলি বিভিন্ন প্রভাবশালী মহল নামে বেনামে লুটেপুটে খাচ্ছে। এ সকল জায়গাগুলি সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়নের প্রয়োজনেও পাওয়া যায় না। তাই হুকুম দখলকৃত জায়গাগুলো যে কারণে হুকুম দখল করা হয়েছিল সেকারণে ব্যবহার করা না হলে হুকুম দখলকৃত মূল্যে ঐসব জায়গাগুলি স্ব স্ব মালিকের নিকট ফেরত দেওয়ারও সবিনয় আহ্বান জানান সুজন।

এছাড়া সভায় বিভিন্ন নাগরিক সমস্যা সমাধানে আগামী মার্চে একটি কনভেনশন আয়োজনের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

Advertisement