তানজানিয়ার প্রথম নারী প্রেসিডেন্ট সামিয়া সুলুহু

208

তানজানিয়ার প্রেসিডেন্ট জন মাগুফুলির আকস্মিক মৃত্যুর পর দেশটির ভাইস প্রেসিডেন্ট সামিয়া সুলুহু হাসান শুক্রবার নতুন প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিয়েছেন।

Advertisement

মৃদুভাষী সামিয়ার জন্ম জানজিবার দ্বীপে। সংবিধান অনুযায়ী, তিনি ২০২৫ সাল পর্যন্ত মাগুফুলির দ্বিতীয় মেয়াদের পাঁচ বছর দায়িত্ব পালন করবেন।

তানজানিয়ার ষষ্ঠ প্রেসিডেন্ট হিসেবে দারুস সালামের এক অনুষ্ঠানে সামিয়া শপথ গ্রহণ করেন। ২০১৫ সালে মাগুফুলির রানিং মেট হিসেবে প্রথম তিনি ভাইস-প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন। গত বছর পুনরায় তিনি মাগুফুলির সঙ্গে নির্বাচিত হন।

ইথিওপিয়ার প্রেসিডেন্ট সাহলে-ওয়ার্ক জেউদের পর সামিয়া দ্বিতীয় কোনো নারী যিনি বর্তমানে আফ্রিকার কোনো দেশের প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। সাহলে-ওয়ার্ক জেউদের দায়িত্ব মূলত আনুষ্ঠানিক।

তানজানিয়ার বাইরে সামিয়া পরিচিতি এতদিন তেমন একটা ছিল না। বুধবার রাতে রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে মাগুফুলির মৃত্যুর কথা জানানোর মাধ্যমে বহির্বিশ্বের অনেকে তার সম্পর্কে জানতে পারে।

৬১ বছর বয়সী সামিয়াকে তানজানিয়ায় ‘মামা সামিয়া’ (মা সামিয়া) নামেও ডাকা হয়। দেশটির সংস্কৃতি অনুযায়ী, শ্রদ্ধা প্রকাশ করতে তাকে এই নামে ডাকা হয়।

শুক্রবার স্থানীয় সময় সকাল ১০টার দিকে শপথ গ্রহণের পর সামিয়া বলেন, ‘আপনাদের সঙ্গে কথা বলতে এটি আমার জন্য একটি ভালো দিন না কারণ আমার হৃদয়ে একটি ক্ষত রয়েছে। আজ আমি একটি শপথ নিয়েছি যা আমার জীবনে নেয়া সকল শপথের থেকে ভিন্ন। সেগুলো আনন্দের সঙ্গে নেয়া হয়েছিল। আজ আমি শোকের মধ্য দিয়ে দফতরের সর্বোচ্চ শপথ নিলাম।’

মৃত্যুর আগে তিন সপ্তাহ জনসম্মুখে আসা থেকে বিরত ছিলেন সাবেক প্রেসিডেন্ট জন মাগুফুলি। বুধবার হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

Advertisement