কোয়ারেন্টিন থেকে পালালেন যুক্তরাজ্য ফেরত ৯ যাত্রী

272

সিলেট নগরীর ব্রিটানিয়া হোটেলে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিন থেকে পালিয়ে যাওয়া যুক্তরাজ্য ফেরত একই পরিবারের ৯ সদস্যকে ফিরিয়ে আনা হয়েছে।পরে কোয়ারেন্টিন থেকে পালিয়ে যাওয়ার অপরাধে তাদের জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

Advertisement

রোববার সন্ধ্যায় একটি গোয়েন্দা সংস্থা হোটেলটিতে কোয়ারেন্টিনে থাকা যাত্রীদের খোঁজ নিতে গেলে বিষয়টি ধরা পড়ে।

এ ঘটনায় স্থানীয় প্রশাসনে তোলপাড় শুরু হয়েছে।সেইসঙ্গে যুক্তরাজ্যেরে নতুন স্ট্রেইনের করোনা সিলেটে ছড়িয়ে পড়ার ঝুঁকি নিয়ে নড়েচড়ে বসেছে স্থানীয় প্রশাসন।পরে হোটেল কর্তৃপক্ষ তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করে রাত সাড়ে ৯টার দিকে হোটেলে ফিরে আসে তারা।এ সময় সংক্রমণ নিরোধন আইনে তাদের বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে প্রাপ্ত বয়স্ক ৬ জনকে ১৮ হাজার টাকা জরিমানা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মেজবাহ উদ্দিন।সেইসঙ্গে হোটেল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ারও সুপারিশ করা হয়।

এ বিষয়ে সিলেটের জেলা প্রশাসক এম কাজী এমদাদুল ইসলাম বলেন, ঘটনাটি শুনেই ঘটনাস্থলে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পাঠানো হয়।তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।এরপর থেকে যারা নিরাপত্তা বলয় ফাঁকি দিয়ে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিন থেকে বেরিয়ে যাবেন তাদের বিরুদ্ধে সংক্রমণ নিরোধন আইন অনুযায়ী কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

এ বিষয়ে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার নিশারুল আরিফ বলেন, প্রতিটি হোটেলে ৪ জন পুলিশ সদস্য নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকেন। এই ঘটনায় দায়িত্বরতদের কোনো অবহেলা আছে কি না, তা খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জানা যায়, গত ১৮ মার্চ যুক্তরাজ্য থেকে সিলেট ওসমানী বিমানবন্দর দিয়ে দেশে আসেন সিলেটের জকিগঞ্জের আবদুল মালিক (৪৬) ও তার পরিবারের রুনা আক্তার (৪৪), তামিমা আক্তার (৯), তায়্যিবা আক্তার ১১, রুবাবা আক্তার (৪৩), রাহিমা বেগম (৪৩), রাদিয়া আক্তার (১১), সায়েমা বেগম (১৮) এবং এম তাহমিদ চৌধুরী (৪)।

সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী, ৭ দিন প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে থাকার কথা। তারা সিলেটের আম্বরখানা এলাকার হোটেল ব্রিটানিয়ার ৬০৩ ও ২০৩নং কক্ষে উঠেন। প্রয়োজনীয় পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে আগামী ২৬ মার্চ তাদের কোয়ারেন্টিন শেষ হওয়ার কথা।

হোটেলটির ব্যবস্থাপক কাওছার খান জানান, রোববার বিকালে রাষ্ট্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা (এনএসআই) হোটেলটিতে থাকা কোয়ারেন্টিনের যাত্রীদের প্রতিটি কক্ষে খোঁজ নেন। এ সময় দেখা যায়, ৬০৩ ও ২০৩-এর দুটি কক্ষের একই পরিবারের ৯ জন যাত্রী হোটেলে নেই। পরে তারা খোঁজ-খবর নেন।

তিনি জানান, যাত্রীদের ফোন করে জানতে পারেন তারা জকিগঞ্জে একটি জরুরি কাজে গিয়েছেন। ঘটনাটি নিয়ে স্থানীয় প্রশাসনে তোলপাড় শুরু হলে হোটেল কর্তৃপক্ষ তাদের ফোন করে ফিরে আসার অনুরোধ জানায়।

কাওছার খান জানান, হয়তো সকালে হোটেলের সামনের ফাঁকা স্থানে প্রাত ভ্রমণের কথা বলে বেরিয়ে তারা পালিয়ে যেতে পারে।এ ঘটনায় সন্ধ্যা ৭টার দিকে হোটেল ব্রিটানিয়ায় আসেন জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মেজবাহ উদ্দিন।দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষা করার পর রাত ৯টার দিকে হোটেলে ফিরে আসেন সেই নয় যাত্রী। পরে তাদের বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে প্রাপ্তবয়স্ক ৬ জনকে ১৮ হাজার টাকা জরিমানা করা হয় বলে জানান নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মেজবাহ উদ্দিন। এর পাশাপাশি তাদেরকে দেখভালে আরও কঠোর হওয়ার জন্য হোটেল কর্তৃপক্ষকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।এছাড়া হোটেল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য সুপারিশ করা হয়েছে বলেও জানান নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।

Advertisement