বাংলাদেশ শ্রীলঙ্কা সিরিজ কবে?

651

জুলাই-আগস্টে হওয়ার কথা ছিল সিরিজটি। শ্রীলঙ্কা সফরে ছয় বছরের মধ্যে প্রথমবারের মতো তিন টেস্টের সিরিজ খেলতো বাংলাদেশ। কিন্তু করোনা এসে সব উল্টেপাল্টে দিল। পরিস্থিতির কারণে বাধ্য হয়েই আগেভাগে সিরিজটি স্থগিত করতে হয়।

Advertisement

কিন্তু এখন আবার আশার কথা শোনা যাচ্ছে। যদি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড আর শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটের মধ্যে আলোচনা ফলপ্রসু হয়, তবে চলতি বছরেরই আগস্ট মাসে শুরু হতে পারে সফরটি। পুনরায় শিডিউল সাজানোর কথা ভাবা হচ্ছে।

‘ক্রিকইনফো’র প্রতিবেদনে এসেছে, যেহেতু ২০২০ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ স্থগিত হয়ে গেছে। তাই দুই বোর্ডই চাইছে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব টেস্ট সিরিজটা যাতে মাঠে গড়ানো যায়। এমনকি করোনায় গত চার মাসে বড় বিরতি পড়ে যাওয়ায় শ্রীলঙ্কায় হাই পারফরম্যান্স দলও পাঠানোর কথা ভাবছে বিসিবি।

বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজন বলেন, ‘তিনটি বড় টুর্নামেন্ট নিয়ে আইসিসির ঘোষণায়, কাজ করার একটা উইন্ডো বের হলো। আমরা এখন জানি টুর্নামেন্টের তারিখ নির্ধারিত, ফলে আমাদের শিডিউল নিয়ে কাজ করতে পারব।’

তিনি যোগ করেন, ‘দুই দেশের বোর্ডই চলতি বছরের শেষদিকে এই টেস্ট সিরিজটি আয়োজনের ব্যাপারে ইতিবাচক। আমরা শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে কথা বলছি। এই মুহূর্তে উপমহাদেশের যে কোনো দেশের চেয়ে শ্রীলঙ্কার অবস্থা ভালো (করোনায়)। যেহেতু আমাদের এখানে অবস্থা অনুকূলে নয়, আমরা তাই বাইরে ম্যাচ খেলতে চাই।’

নিজামউদ্দিন চৌধুরী আরও জানান, স্থগিত হওয়া আয়ারল্যান্ড সফর নিয়েও ভাবছে বিসিবি। যদি বাংলাদেশে করোনা পরিস্থিতির উন্নতি হয় তবে ঘরের মাঠে অস্ট্রেলিয়া এবং নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষ সিরিজ আয়োজনের পরিকল্পনাও আছে।

এমনকি ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ পুনরায় শুরুর ব্যাপারেও ইতিবাচক বিসিবি। গত মার্চে মাত্র এক রাউন্ড হওয়ার পর করোনার কারণে লিগ স্থগিত ঘোষণা করা হয়। বিসিবির প্রধান নির্বাহী বলেন, ‘আমাদের ঘরোয়া ক্রিকেটকেও অগ্রাধিকার দিচ্ছি। আমরা ডিপিএলের ক্লাব এবং বিপিএল ফ্র্যাঞ্চাইজিদের সঙ্গে আলোচনা করছি। তবে চূড়ান্ত সিদ্ধান্তের আগে আমাদের হোটেল এবং লজিস্টিকসহ বিভিন্ন বিষয় মাথায় রাখতে হচ্ছে।’

সূত্রঃ জাগো নিউজ ২৪

Advertisement