এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইমেন’র দশম সমাবর্তন অনুষ্ঠিত

13

দক্ষিণ এশিয়ার একমাত্র নারী বিশ্ববিদ্যালয় এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইমেন’র দশম সমাবর্তন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

Advertisement

শনিবার (২১ জানুয়ারি) চট্টগ্রামের বায়েজিদ লিংক রোডের আরেফিন নগরে অবস্থিত বিশ্ববিদ্যালয়ের

স্থায়ী ক্যাম্পাসে দেশি-বিদেশি অতিথিদের অংশগ্রহণে এই সমাবর্তন অনুষ্ঠিত হয়।

সমাবর্তনে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের চ্যান্সেলর সাবেক বৃটিশ ফার্স্ট লেডি চেরি ব্লেয়ার, বিশ্ববিদ্যালয়ের বোর্ড অব ট্রাস্ট্রিজ চেয়ার শিক্ষামন্ত্রী ডা. দিপুমনি। বিশেষ অতিথি ছিলেন ডেনমার্কের সাবেক প্রধানমন্ত্রী পল নায়রুপ রাসমুসেন।

বক্তব্য রাখেন এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইমেন’র ভাইস চ্যান্সেলর ড. রুবানা হক, বিশ্ববিদ্যালয়ের ফাউন্ডার কামাল আহমেদ, কো-ফাউন্ডার জ্যাক মায়ের। সাবেক মার্কিন ফার্স্ট লেডি লরা বুশ এবং হিলারি ক্লিনটনের শুভেচ্ছা বক্তব্য অনুষ্ঠানে পাঠ করে শুনানো হয়।

সমাবর্তনে বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, আফগানিস্তানসহ ১৬টি দেশের ৩শ’ ছাত্রীকে আনুষ্ঠানিক ডিগ্রি প্রদান করা হয়।

শিক্ষামন্ত্রী দিপুমনি, চেরি ব্লেয়ারসহ অতিথিরা ছাত্রীদের হাতে সনদ তুলে দেন।

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেন, ‘স্বাধীনতাবিরোধীরা ষড়যন্ত্রের অন্য উপায় না পেয়ে এখন পাঠ্যক্রমের ওপর চড়াও হয়েছে। সামাজিক যোগযোগমাধ্যমে পাঠ্যবই নিয়ে মিথ্যাচার করছে এই অপশক্তি। অথচ পাঠ্যবইয়ে ধর্মবিরোধী কোনো কিছুই নেই।’

ক্ষোভ প্রকাশ করে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘নতুন পাঠ্যপুস্তকে ইসলাম বিরোধী বিষয় আছে বলে একটি গোষ্ঠী অপপ্রচার চালাচ্ছে। আরও বলা হচ্ছে- ইসলাম ধর্ম সংক্রান্ত সব বিষয় সরিয়ে দিয়ে ভিন্নধর্মী জিনিসপত্র আনা হয়েছে, এটি একেবারেই অসত্য। মূলত তিন বছর আগের ভারতের পশ্চিমবঙ্গের একটি বইয়ের ছবি দিয়ে এই অপপ্রচার চালানো হচ্ছে। যে বইটি এখন সেখানেও চলে না। আমার ছবি লাগিয়েও নানাভাবে অপপ্রচার চালাচ্ছে অপশক্তি। তাঁদের আপনারা সবাই চেনেন। তাঁরা শুধু মিথ্যাচার করে দেশের শিক্ষা ব্যবস্থাকে নষ্ট করতে চায় না, দেশের স্থিতিশীল পরিবেশটাকেও নষ্ট করতে চায়।’

এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইমেনের উদ্দেশে দীপু মনি বলেন, ‘যে উদ্দেশ্যে এ বিশ্ববিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠিত হয়েছে, সেটি আজ অনেকটাই সফল। এখানকার নারীরা সমাজকে বদলে দিতে-নেতৃত্ব দিতে কাজ করছেন। সমাবর্তনের মাধ্যমে যারা স্নাতক হয়েছেন তাঁরা নিজ নিজ কর্মক্ষেত্রে সফলতার স্বাক্ষর রাখবেন। আমাদের পোশাক শিল্পে যে নারী কর্মীরা আছেন তাঁরা এখান থেকে উচ্চতর ডিগ্রি নিয়ে আজ সফল উদ্যোক্তা হয়েছেন। তৈরি পোশাক শিল্পেও প্রতিনিয়ত অবদান রাখছেন তাঁরা।’

সভাপতির বক্তব্যে বিশ্ববিদ্যালয়টির উপাচার্য রুবানা হক বলেন, ‘বিগত বছরগুলোতে এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইমেনের দারুণ অগ্রগতি হয়েছে। অবকাঠামোগত উন্নয়ন এখনও চলমান। এখান থেকে উচ্চতর ডিগ্রি নিয়ে দেশ-বিদেশের শিক্ষার্থীরা বিশ্বের নানান দেশে সফলতার স্বাক্ষর রাখছেন। যেসব দেশ নারীশিক্ষায় পিছিয়ে রয়েছে এবং নারীদের শিক্ষা চ্যালেঞ্জের মুখে তাদেরকে আমাদের এই বিশ্ববিদ্যালয়ে স্বাগত জানাচ্ছি।’

Advertisement