পার্লারকর্মীকে জোর করে দেহব্যবসা করানো নারী কাউন্সিলর রিমান্ডে

205

গাজীপুরে বাসায় আটকে রেখে বিউটি পার্লার কর্মী নওমুসলিম এক কিশোরীকে (১৬) দিয়ে জোরপূর্বক দেহব্যবসা করানোর অভিযোগে গ্রেফতার গাজীপুর সিটি করপোরেশনের (গাসিক) আলোচিত নারী কাউন্সিলর রোকসানা আহমেদ রোজীকে একদিনের রিমান্ডে পাঠিয়েছেন আদালত। শনিবার গাজীপুর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ইকবাল হোসেন এ আদেশ দেন।

Advertisement

এদিন নারী কাউন্সিলরকে রোজীকে আদালতে হাজির করে তার সাতদিনের রিমান্ড আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সাখাওয়াত হোসেন। শুনানি শেষে আদালত আসামির একদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের (জিএমপি) বাসন থানার ওসি মো. কামরুল ফারুক এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে শুক্রবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) রাতে রাজধানীর দক্ষিণ খান এলাকার একটি বাসা থেকে রোজীকে গ্রেফতার করে র‌্যাব-১ এর একটি দল।

র‌্যাব-১ এর পোড়াবাড়ী ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার লে. কমান্ডার আবদুল্লাহ আল-মামুন জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শুক্রবার রাত ৯টা ৫ মিনিটের দিকে রাজধানীর উত্তরার দক্ষিণ খান এলাকার একটি বাসায় অভিযান চালায় র‌্যাব-১ এর একটি দল। এ সময় ওই বাসা থেকে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের সংরক্ষিত আসনের নারী কাউন্সিলর (১৬, ১৭ ও ১৮নং ওয়ার্ড) রোকসানা আহমেদ রোজীকে গ্রেফতার করা হয়। বাসায় আটকে রেখে বিউটি পার্লার কর্মী এক কিশোরীকে দিয়ে জোরপূর্বক দেহব্যবসা করানোর অভিযোগে কাউন্সিলর রোকসানা আহমেদ রোজী ও বাড়ির কেয়ারটেকার নুরুল হকসহ অজ্ঞাত আরও ২-৩ জনের বিরুদ্ধে গত মঙ্গলবার জিএমপির বাসন থানায় মামলা দায়ের করেন ওই কিশোরী। ওইদিনই বাসন থানা পুলিশ নুরুল হককে গ্রেফতার করলেও ঘটনার পর থেকে কাউন্সিলর রোজী পলাতক ছিলেন।

প্রসঙ্গত, গাজীপুর সিটি করপোরেশনের (গাসিক) সংরক্ষিত আসনের নারী কাউন্সিলর (১৬, ১৭ ও ১৮ নং ওয়ার্ড) রোকসানা আহমেদ রোজীর মালিকানাধীন চান্দনা চৌরাস্তা এলাকায় রহমান শপিংমলের আনন্দ বিউটি পার্লারে প্রায় চার মাস আগে চাকরি নেন ওই কিশোরী। তার বাড়ি নেত্রকোনা জেলার কলমাকান্দা থানাধীন বড়য়াকোনা এলাকায়। পার্লারে চাকরির পাশাপাশি তাকে দিয়ে গ্রেট ওয়াল সিটি এলাকায় রোজীর ভাড়া বাসায় গৃহকর্মীর কাজ করতে বাধ্য করা হয়। এরপর ওই কিশোরীকে বাসায় আটকে রেখে বাড়ির কেয়ারটেকার নুরুল হকের সহযোগিতায় প্রায় দু’মাস যাবৎ বিভিন্ন সময়ে জোরপূর্বক পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করেন কাউন্সিলর রোজী।

একপর্যায়ে মঙ্গলবার কৌশলে বাসা থেকে পালিয়ে যান ওই কিশোরী। এ ঘটনায় জিএমপি’র বাসন থানায় মানব পাচার প্রতিরোধ ও দমন আইনে ও পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করার অভিযোগে কাউন্সিলর রোজী ও বাড়ির কেয়ারটেকার নুরুল হকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন ওই কিশোরী।

Advertisement