চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রদলনেতা নওশেদকে গ্রেফতার করায় বিএনপির নিন্দা

670

চট্টগ্রাম মহানগর ছা্ত্রদলের সাবেক সহ-সভাপতি নওশেদ আল জাসেদুর রহমানকে বৃহস্পতিবার বিকালে মৌলভী পুকুরপাড় এলাকা থেকে চাঁন্দগাও থানা পুলিশ গ্রেফতার করায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ভাইস চেয়ারম্যান মীর মোঃ নাছির উদ্দীন, চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা বেগম রোজী কবির, গোলাম আকবর খন্দকার, এস এম ফজলুল হক, চট্টগ্রাম বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবের রহমান শামীম, চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির আহবায়ক ডাঃ শাহাদাত হোসেন, সদস্য সচিব আবুল হাশেম বক্কর, দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহবায়ক আবু সুফিয়ান, সদস্য সচিব মোস্তাক আহমেদ খান।

Advertisement

শনিবার (২৭ ফেব্রুয়ারী) এক বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, জনগণের ওপর বর্তমান অবৈধ সরকারের কোনো আস্থা নেই। আর তাই ক্ষমতায় টিকে থাকতে তারা বিএনপির ওপর দমন-পীড়ন চালাচ্ছে। প্রশাসন যন্ত্রকে তাদের অবৈধ ক্ষমতায় ঠিকে থাকার খুটি হিসাবে ব্যবহার করছে। নওশেদ মহানগর ছাত্রদলের একজন প‌রিশ্রমী ও ত্যাগী ছাত্রনেতা। ছাত্রদলকে সুসংগঠিত ও শক্তিশালী করতে সে গুরুতপূর্ন ভূমিকা রেখে আসছিল। তাই তাকে রাজনীতির মাঠ থেকে দুরে রাখতেই অন্যায়ভাবে গ্রেফতার করেছে।

নেতৃবৃন্দ বলেন, বর্তমান অনির্বাচিত সরকার বিএনপি নেতকর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে ক্ষমতার মসনদকে সুরক্ষিত করার চেষ্টা করছে। বিএনপি নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে হাজার হাজার মামলা হয়েছে, অসংখ্য নেতাকর্মী গুম ও খুনের শিকার হয়েছে। প্রতিনিয়ত নেতাকর্মীরা কারগারে যাচ্ছে এবং জামিন নিয়ে পূণরায় রাজপথে নেমে আসছে। মিথ্যা মামলা ও কারাগারকে বিএনপির নেতারা এখন ভয় পায় না। তারা মানুষের অধিকার আদায় করতে একবার নয় শতবার কারাগারে যেতে প্রস্তুত আছে।

নেতৃবৃন্দ ছাত্রদলনেতা নওশেদকে মিথ্যা, বানোয়াট ও হয়রানীমূলক মামলায় গ্রেফতারের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান। অবিলম্বে সমস্ত অপকৌশল ও হয়রানী বন্ধ করে ছাত্রদলনেতা নওশেদসহ ইতিপূর্বে গ্রেফতারকৃত মহানগর ছাত্রদলের সাবেক সহসভাপতি জিয়াউদ্দীন চৌধুরী জিয়া, নিয়াজ মোরশেদ খান ও বর্তমান যুগ্ম আহবায়ক মাহমুদুর রহমান বাবুর নিঃশর্ত মুক্তির দাবী জানান।

Advertisement